পরামর্শ দিয়েছেন

বিশেষজ্ঞ পুষ্টিবিদ

শেয়ার এবং প্রিন্ট করুন

ভেজিটেবল কাটলেট

ভারতীয় উপমহাদেশের নানা অঞ্চলে ভেজিটেবল কাটলেট বেশ জপ্রিয় একটি খাবার। বেশ সহজেই ঘরে তৈরি করা যায় সুস্বাদু এ খাবারটি। স্ন্যাক্স হিসেবে যা হতে পারে মজাদার কিছু। এটি স্বাদে মচমচে হয়। এর সাথে যদি থাকে কোন চাটনি অথবা সস, তবে স্বাদটা হবে জিভে লেগে থাকার মত। এই কাটলেট-টি আপনার পছন্দ এবং ডায়েট অনুসারে যে কোন পরিমানের তেলেই ভেজে নিতে পারেন।
ভেজিটেবল কাটলেট তৈরি হয় বিভিন্ন সবজির সংমিশ্রণে। যাতে মূল উপাদান হিসেবে থাকে আলু। যাদের ডায়েটে আলু নিষিদ্ধ তারা এ রেসিপিতিতে আলুর পরিবর্তে মিষ্টিআলু বা কাঁচাকলা ব্যবহার করতে পারেন।
ভেজিটেবল কাটলেট তৈরি করতে আপনি আপনার পছন্দমত যেকোন সবজি ব্যবহার করতে পারেন। আমরা এ রেসিপিতে ব্যবহার করব আলু, মটরশুটি, গাঁজর এবং বরবটি। এছাড়াও এ রেসিপিতে আপনারা ব্যবহার করতে পারেন ব্রকলি, সুইট কর্ণ, মিষ্টি আলু এবং বিট। এর পুষ্টিগুণ বাড়ানোর জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে সবুজ শাক। যেমনঃ পালং শাক। এ কাটলেটগুলো বার্গারের প্যাটি হিসেবে ও ব্যবহার করা যেতে পারে।

পুষ্টি উপাদানঃ
এই রেসিপিতে আছে কার্বো-হাইড্রেড, ফ্যাট এবং মিনারেলের একটি সুন্দর সমন্বয়। ব্যবহৃত বিভিন্ন রঙিন সবজিতে যে ভিটামিন ও মিনারেল আছে, তা আমাদের পরিপাকতন্ত্রে শোষণ হবার জন্য প্রয়োজন ফ্যাট। যা আমরা ব্যবহার করছি ভাজার জন্য।
যে কোন রঙিন সবজিতে আছে এন্টি-অক্সিডেন্ট, ফাইবার, ভিটামিন ও মিনারেল। এছাড়াও আছে জিংক। যা কোভিড মহামারীর মত রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক। এছাড়াও মশোলা হিসেবে যে আদা ও জিরা ব্যবহৃত হচ্ছে তার রয়েছে এন্টি-ইনফ্লেমেন্টরি গুণাবলী। যে কোন ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়ার হাত থেকে শরীরকে রক্ষা করতে যার জুড়ি নেই।
বাচ্চাদের অনেকেই সবজি খেতে আগ্রহ প্রকাশ করে না। তাদের জন্য এটি একটি মজার রেসিপি হবে।

ভেজিটেবল কাটলেটের রেসিপিঃ
প্রস্তুত প্রণালী ও পরিবেশন
১। প্রথমে বরবটি, গাঁজর এবং আলুগুলোকে ছোট ছোট টুকরা করে নিন। আপনি চাইলে ফুলকপি, বিট এবং বাধাকপিও ব্যবহার করতে পারেন। এ রেসিপিতে মটরশুটি ব্যবহার করা হয়েছে।
২। একটি পাত্রে নিয়ে নরম হওয়া পর্যন্ত ভাপ দিন। যদি পাত্রে রান্না করেন তবে ভালো করে পানি ঝরিয়ে নিন।
সবজিতে পানি থাকলে তেল বেশি শুষে নিবে এবং ভেঙ্গে যাবে।
৩। সবজিগুলো ভাল করে একসাথে মাখিয়ে নিন।
৪। ধনিয়া পাতা, কাঁচা মরিচ কুঁচি, গরম মসলা, জিরা গুড়া এবং আদা বাটা দিয়ে সব কিছু ভাল করে মেখে নিন।
৫। ভালো করে ব্রেডক্রাম্ব মিশিয়ে নিন। এক্ষেত্রে লাল বা সাদা পোহার গুড়াও ব্যবহার করা যেতে পারে। এটি ব্রেডক্রাম্বের চেয়ে বেশি আদ্রতা শুষে নেয় এবং পুষ্টিকর।
৬। সব কিছু ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি যাতে আঠালো না হয়। এখান থেকে ছোট ছোট অংশ নিয়ে কাটলেট তৈরি করুন।
৭। ২ টেবিল চামচ বেসন বা চালের গুড়া মিশিয়ে ব্যাটার তৈরি করুন। ব্যাটার খুব বেশি ডুবানোর প্রয়োজন নেই।
৮। এরপর কাটলেটের দুই পাশ ভালো করে ব্রেডক্রাম্বে চুমিয়ে নিন। আপনি চাইলে পোহা বা কর্ণফ্লেক্স ব্যবহার করতে পারেন।
৯। সবগুলো একইভাবে তৈরি করে নিন এবং একটি প্লেটে সাজিয়ে রাখুন। ৫-১০ মিনি্ট এভাবে রেখে দিন।
এটি প্যাটির গায়ে ব্রেডক্রাম্ব ভাল করে লাগতে সাহায্য করবে।
১০। একটি প্যানে তেল গরম করুন। অল্প তেলে ভেজে নিন অথবা বেক করে নিন। প্রতি ৫টি কাটলেট ভাজতে ৩ চা চামচ তেল দিন। আপনি চাইলে ২ চামচ তেল ব্যবহার করতে পারেন।
১১। দুই পাশ উলটে বাদামি হওয়া পর্যন্ত ভেজে নিন।
১২। চাটনি বা সস দিয়ে পরিবেশন করুন।

সহজে ভেজিটেবল কাটলেট তৈরির কিছু টিপসঃ
১। ভেজিটেবল গুলোকে নরম হওয়া পর্যন্ত সিদ্ধ করুন। খেয়াল রাখবেন যাতে অতিরিক্ত সিদ্ধ না হয়। কেননা, বেশি সিদ্ধ হলে কাটলেট নরম হয়ে যাবে।
২। সবজিগুলোকে মাখুন এবং ব্রেডক্রাম্ব বা পোহা অথবা বেসন দিয়ে কাটলেট তৈরি করুন। এরমধ্যে পোহা সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর।
৩। বাদামী হওয়ার আগ পর্যন্ত ভালোভাবে ভেজে দু’পাশ উলটে ভেজে নিন।
৪। চাইলে যে কোন ধরনের মশলা বা সুগন্ধী ব্যবহার করা যেতে পারে। গরম মশলাও সুস্বাদু হতে পারে।

Leave a Reply