পরামর্শ দিয়েছেন

বিশেষজ্ঞ পুষ্টিবিদ

শেয়ার এবং প্রিন্ট করুন

পুষ্টিকর ওটমিল প্যানকেক

সকাল কিংবা বিকেলের নাস্তায় মায়েরা চান বাচ্চাকে সবসময়ই পুষ্টিকর খাবার দিতে। কিন্তু বাচ্চাদের মন কী আর শুধু পুষ্টিকর খাবারে ভরে! তাই বাচ্চার বিকেলের নাস্তায় ভিন্নতা আনতে তৈরি করতে পারেন মজাদার ও পুষ্টিকর ওটমিল প্যানকেক। চলুন জেনে নেয়া যাক রেসিপিটি-

উপকরণ-

১ কাপ ওটস

১/২ কাপ সুজি

১/২ চা চামচ জিরা

১ কাপ বাটারমিল্ক

১ টেবিল চামচ লেবুর রস

১ টেবিল চামচ আদা কুচি

২টি কাঁচামরিচ কুচি

১টা পেঁয়াজ কুচি

১টা ছোট গাজর কুচি

১টা ছোট টমেটো কুচি

১টা ছোট ক্যাপসিকাম কুচি

৪/৫টি পালংশাক কুচি

১ টেবিল চামচ মাখন/তেল

ধনিয়া পাতা কুচি পরিমাণ মতো

লবণ স্বাদমতো

প্রনালী-

১। প্রথমে একটি ব্লেন্ডারের সাহায্যে ২০-৩০ সেকেন্ডের জন্য ওটস ব্লেন্ড করে গুড়ো করে নিতে হবে।

২। এরপর একটি বাটিতে গুড়ো করা ওটসের সাথে সুজি, বাটারমিল্ক ও লেবুর রস মিলিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যাতে  মিশ্রণটি বাটারমিল্কে ডুবে থাকে। ১৫-২০ মিনিট মিশ্রণটি ভিজিয়ে রাখতে হবে।

৩। মিশ্রণটির সাথে তারপর একে একে স্বাদমতো লবণ, কাঁচা মরিচ কুচি, পেঁয়াজ কুচি, গাজর কুচি, টমেটো কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি, কেটে রাখা পালংশাক, ধনিয়া পাতা কুচি ও জিরা মিক্স করতে হবে। প্রয়োজন হলে কিছুটা পানি মেশানো যেতে পারে। তবে খেয়াল রাখতে হবে মিশ্রণটি যাতে বেশি পাতলা না হয়ে যায়।

৪। একটি ননস্টিক ফ্রাইপ্যানে পরিমাণ মতো তেল বা মাখন ব্রাশ করে নিতে হবে। তেল গরম হলে মিশ্রণটি চামচ দিয়ে তুলে গোল করে প্যানে ছড়িয়ে দিতে হবে। ১-২ মিনিট ভাজার পর মিশ্রণটি উল্টে দিতে হবে এবং অপর পাশও একই সময় ধরে ভেজে নিতে হবে। প্রয়োজন হলে তেল বা মাখন প্যানে ব্রাশ করে নিতে হবে। হালকা বাদামি রঙ করে ভেজে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে সুস্বাদু ও পুষ্টিকর ওটমিল প্যানকেক।

কেচাপ কিংবা সসের সাথে আপনার বাচ্চাকে সার্ভ করতে পারেন ভিন্নধর্মী মজাদার এই বিকেলের নাস্তা।

Leave a Reply