পরামর্শ দিয়েছেন

শায়লা সাবরিন
সিনিয়র ডায়েটিশিয়ান

শেয়ার এবং প্রিন্ট করুন

গর্ভাবস্থায় প্রোটিন কেন জরুরি ?

গর্ভকালীন সময়ে গর্ভস্থ সন্তানের পরিপূর্ণ বিকাশ নিশ্চিতে মায়ের চাই বাড়তি যত্ন ও সব রকমের পুষ্টি চাহিদা পূরণে বিশেষ ডায়েট.

 এসব পুষ্টি উপাদানের মধ্যে অন্যতম হলো প্রোটিন

 গর্ভাবস্থায় মা যদি পর্যাপ্ত প্রোটিন না পায় তার বিরূপ প্রভাব পড়ে গর্ভস্থ সন্তানের দেহ গঠন  ও ওজনের উপর

 

 গর্ভাবস্থা ভ্রূণের কোষ গঠন ও বৃদ্ধি সাধনে

 শরীরে  যাওয়া পর প্রোটিন ভেঙে  রূপান্তরিত হয় অ্যামিনো এসিড  যা  সন্তান এর সেল বা কোষ গঠনে অন্যতম উপাদান যাকে বলা হয় বিল্ডিং বক্স

 টিস্যু পেশী ও অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ গঠন করে প্রোটিন . গর্ভাবস্থা  প্রতিটি ধাপে  প্রোটিনের চাহিদা  ট্রাইমিস্টার  অনুযায়ী অনুযায়ী বাড়তে থাকে

 

 ভ্রূণের হাড়ের কাঠামো গঠন গর্ভাবস্থায় ক্যালসিয়াম, ফসফরাস ও ভিটামিন ডি ভ্রূণের হাড়ের কাঠামো গঠনে গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান 

দুগ্ধজাতীয় প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার গ্রহণে  এই পুষ্টি উপাদান গুলির সহজে পাওয়া যেতে পারে যা ভ্রূণের  হার এর বৃদ্ধি ও মজবুত  গরমে,  স্নায়ুর গঠনের বিকাশে সাহায্য করা শক্তিশালী পেশী এবং হৃদপিণ্ড বিকাশে সহায়তা করে

 অপর্যাপ্ত পরিমাণে ক্যালসিয়াম গ্রহণের ফলে বা দুর্বল গঠন হতে পারে এবং এমনকি প্রতিবন্ধী হওয়ার কারণ হতে পারে ক্যালসিয়ামের পর্যাপ্ত পরিমাণ গ্রহণের ফলে  রিকেটসিয়া হওয়ার ঝুঁকি  রাস হতে পারে 

 

 গর্ভাবস্থা মায়ের রক্ত স্বল্পতা রোধে আয়রন ও ফলিক এসিডের চাহিদা অনেক গুন বেড়ে যায় যা গর্ভাবস্থায় রক্ত  স্বল্পতা রোধে সহায়তা করে

 একজন গর্ভবতী মা এর প্রতিদিনের  খাবার তালিকা প্রাণিজ ও উদ্ভিদ প্রোটিনের উৎস থেকে এই চাহিদা মেটানো সম্ভব

 

 অনাগত শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশে ব্রণের বাইরের ফ্যাটি এসিড যেমন ওমেগা 3 সেই সাথে ডি এইচ এ খুব গুরুত্বপূর্ণ

 বিভিন্ন মাছ বাদাম জাতীয় প্রোটিন এর উৎস থেকে এই নিউট্রিয়েন্ট গুলি পাওয়া যায় তবে গর্ভাবস্থায় সামুদ্রিক মাছ পরিহার করা ভালো

কতটুকু প্রোটিন প্রয়োজন?

 গঠনভেদে একেকজন মায়ের শরীরে প্রোটিনের চাহিদা এবং প্রয়োজনীয়তা একেক রকম. 

 তাই পুষ্টিবিদ এর পরামর্শ মত প্রোটিন গ্রহণ করা শ্রেয়.

 তবে আদর্শ একটা মাপকাঠি অবশ্যই আছে সে অনুযায়ী একজন গর্ভবতী মায়ের ট্রাইমিস্টার অনুযায়ী প্রথম দ্বিতীয় তৃতীয়)  প্রোটিন গ্রহণের   চাহিদা বাড়বে

 

 যেসব খাবারে প্রোটিন পাবেন 

  • পোল্ট্রি উৎস হাঁস মুরগির মাংস ডিম
  •  লাল মাংস(  গরু বা খাসি)
  • মাছ ছোট-বড়
  •  দুগ্ধজাতীয় প্রোটিন দুধ ছানা   দই  পনির
  • বাদাম পিনাট  বাটার
  •  শিমের বিচি, মোটর সুটি, অঙ্কুরিত ছোলা, বিভিন্ন ধরনের ডাল ( দুই বা তিন রকমের ডাল একসাথে মিশিয়ে রান্না করলে প্রোটিনের মান কয়েকগুণ বেড়ে যায়) 
Leave a Reply